তোমার কথা রাখতে পারলাম না মা

মাগো তোমার কথা আমার
এখনও মনে আছে
এখনতো বেশী বেশী মনে পড়ছে
তুমি বলেছিলে
আমরা গরীব মানুষ
সোজা কথায় লোকে বলে প্রজা
রাজার বিরুদ্ধে কথা বলা
আমাদের সাজেনা
প্রজার কাজ রাজার বিরুদ্ধে
লড়াই করা নয়।
মাগো আজ তুমি নাই
তোমার কথা এক বিন্দুও ভুলিনি আমি
প্রজার কাজ
রাজার হুকুম তামিল করা।
মাগো তুমি বলেছিলে
বাপজান , পড়ালেখা করে বড় হ
দশজনে সম্মান করবে
সালাম দিবে
আমরা অনেক কষ্ট করে
তোমাকে পড়াচ্ছি
কখনও উল্টো পথে চলোনা
রাজার বিরুদ্ধে শুধু
রাজাই যেতে পারে
আমরাতো প্রজা
আমাদের ওসবে শোভা পায়না।
মাগো, তোমাদের কথা মনে রেখে
সারা জীবন চলেছি
শুধু নিজের কথা ভেবেছি
রাজার অত্যাচারে প্রজারা
আজ সবাই দিশেহারা
সবাই আজ মজলুম
চুপ করে থেকেও কি মা
কারো রেহাই আছে
চারিদিকে রাতদিন
পাইক পেয়াদা বরকন্দাজ
সিপাহী কোতোয়ালের বুটের
আওয়াজ শুনি
মাগো দুই হাজার তেরো সালের
রাজারতো এমন হওয়ার কথা ছিলনা
তোমাদের বা দাদার জামানা
রাজারা না হয়
ফেরাউনের বংশধর ছিলো
অজানা অচেনা ছিল
এখন রাজারাতো আমাদেরই লোক
আমাদেরই মানুষ।
তাহলে এমন জুলুম কেন মা
আমার বন্ধুর বাবা বললো
রাজা হলেই নাকি
মানুষ আর মানুষ থাকেনা
প্রতিদিন মানুষ মরছে
শহরে বন্দরে
গাঁও গেরামে
হাটে মাঠে
শুধু কান্নার রোল
বুক ফাটানো আহাজার আর মাতম
কত মায়ের বুক খালি
হয়ে গেছে
কত বউ বিধবা গেছে
গ্রাম গুলো উজাড় হয়ে যাচ্ছে
একাত্তুরের মতো কোন
সকল যুবকই আজ
গৃহহারা গ্রামছাড়া
মাগো, সিপাহী কোতোয়াল
সবাই বাংলায় কথা বল
সবাই কোরাসে গাণ ধরে
‘আমার সোনার বাংলা
আমি তোমায় ভালবাসি’।
তাহলে এ কোন রাজা বা রাণী
এরা কোন কোতোয়াল বা সিপাহী
ওরা কাকে মারছে মা
শুনেছি ,বড়বুবুর ছেলেটা
সিপাহী হয়েছে
ওকি তাহলে ইস্ট কুটুমের
বুকে গুলি মারছে
এবার মাগো
খোদাইতো বলেছে
জালিমের বিরুদ্ধে জেহাদ করো
প্রতিবাদ করো
এটা মজলুমের হক
মজলুমের অধিকার।
মাগো, আমি তোমার কথা
রাখতে পারিনি
দু:খে বেদনায় আমার
বুক ভেংগে গেছে
আমি এখন জালেমের
জিঞ্জিরখানায় বন্দী
শুনছি জালেমের আদালতে
আমার ফাঁসী হবে
আমার অপরাধ
আমি এই কবিতাটি লিখেছি।
না মা পারলাম না
প্রজা হয়েও চুপ করে থাকতে
তুমি শুধু আমার জন্যে
দোয়া করো
আখেরাতে ভাল থাকি।