দেশ প্রেমিকরাই সকল শাসকের শত্রু

সন্ধ্যার পর থেকেই রাজধানী থমথমে হয়ে গেলো
আকাশে মেঘ জমেছে
মনে হলো কোথাও বৃষ্টি হচ্ছে
বা এখনি কোথাও বৃষ্ট নামবে
মনে হলো কোথাও কোন দেশে
কোটি মানুষের চোখে বেদনার ঢল নেমেছে
রাজধানীতে কোন কারফিউ ছিলনা
তবুও মানুষ সব ঘরে ফিরে গেছে
জীবনের নিরাপত্তার কথা ভেবে
শাসকের সাঁজোয়া গাড়ি গুলো টহল দিচ্ছে
শাসকের বরকান্দাজেরা অস্ত্র তাক করে
তাদের সদা তৈরির কথা ঘোষণা দিচ্ছে।
রেডিও টিভিতে ঝাঁকে ঝাঁকে খবর আসছে
কোন এক ব্যক্তির ফাঁসী হয়েছে কিছুক্ষণ আগে
কেউ বলছেন একজন মানবতার শত্রু
ফাঁসী কার্যকর হয়েছে
কেউ বলছেন একজন খোদা প্রেমিক
দেশ প্রেমিকের শাস্তি হয়েছে রশিতে ঝুলিয়ে।
যেমন ইংরেজেরা ফাঁসীতে ঝুলিয়েছে
দেশ প্রেমিক শের আলী খানকে
অপরাধ ছিল খান একজন শাসককে হত্যা করেছ
ইমামে আজম আবু হানিফাকে
হত্যা করেছে একজন খলিফা
অপরাধ ছিল তিনি একজন জ্ঞানী
তিনি সত্য এবং ন্যায়ের সৈনিক ছিলেন
তিনি একজন খাঁটি খোদা প্রেমিক ছিলেন
আড়াই হাজার বছর পার হয়ে গেছে
আমরা এখনও সক্রেটিসের কথা ভুলিনি
এমন মহামানবকে বিষ দিয়ে
হত্যা করেছে শাসক
অপরাধ ছিল তিনি জ্ঞানী ছিলেন
তিনি সত্যের আলো ছড়িয়ে দিতেন
মানুষের ভিতর
কিন্তু শাসকে তা পছন্দ হয়নি
তাই সত্যকে তারা গলা টিপে হত্যা করেছ
আসলে কি সত্য কি কখনও মারা যায় ।
যুগ যুগ ধরে দেশে দেশ
খোদা প্রেমিক দেশপ্রেমিকদের
শাসকেরা হত্যা করে
সকল দেশেই শাসকেরা
সবচেয়ে বেশী ভয় পায় দেশ প্রেমিকদের
দেশ প্রেমিকদের হত্যা করাই শাসকের কাজ।
নবী আউলিয়ারা ও
নির্যাতিত হয়েছেন ,নিহত হয়েছেন
শাসক ও সমাজের হাতে
এদের হাত থেকে রেহাই পায়নি
কোন দার্শনিক ও বিজ্ঞানীরা
রাজা মহারাজা বা বাদশাহ সম্রাটরাতো
রাজ্যের জন্যে যুদ্ধ করে মারা যান
অথবা ঘাতক বা আপনজন তাদের হত্যা করে
যেমন বংগবন্ধু ইন্দিরা গান্ধী জিয়া
আর জুলফি নিহত হয়েছে
এমন কি গান্ধীজীও নিহত হয়েছেন
নিজের বিশ্বাসের জন্যে।
স্বাধীন বাংলার শেষ সূর্য নবাব সিরাজও
জীবন দিয়েছে দেশের জন্যে
তখনও একদল লোক আনন্দ করেছে
মিছিল করেছে,থুতু দিয়েছে সিরাজের গায়ে
এখনও শাসক প্রেমিকেরা
মিছিল করে দেশ প্রেমিকের মৃত্যুতে
পাইক বরকন্দাজের পাহারায়
নিরাপত্তা খোয়াড়ে
শাসকের জয়গাণ করে
এসবতো নতুন কিছু নয়
দেশে দেশে গাঁয়ে গাঁয়ে ঘরে ঘরে
নগরে বন্দরে বস্তিতে বস্তিতে মানুষ
মরছে শাসকের গুলিতে
অপরাধ তারা নাকি দেশ প্রেমিক নয়
তারা নাকি এজিদের জিকির করেনা
হামদ পড়েনা খলিফার প্রশংসায়
তারাতো ছিলো নবীজীর পরম প্রিয় নাতি
কই এজিদতো রেহাই দেয়নি
ফাতিমার প্রাণের কলিজাকে
হে মেঘ তোমরা চোখের জলে বুক ভাসিওনা
বরং সাক্ষী হয়ে থাকো
জালেমেরা কিভাবে জগতে
খোদা প্রেমিক
দেশ প্রেমিকদের হত্যা করে
হে মেঘ, তোমরা সাক্ষী দিও
জগতের সকল অন্ধকার
আর জুলুমাতের বিরুদ্ধে
হে ফেরেশতারা তোমরাও সাক্ষী দিও
ফরিয়াদ করো মজলুমের পক্ষে
তোমরাতো জানোই
খোদার আরশ কেঁপে উঠে
মজলুমের আহাজারিতে।