তুমিইতো থাকো আমার পাশে

তুমিতো ভালই জানো আমি ইচ্ছা করলেই হুট করে চলে যেতে পারিনা।

যাওয়া বা আসার ব্যাপারে আমার সীমাবদ্ধতার কথা

তোমার চেয়ে আর বেশী কে জানে বলো। আমিতো মানুষ, আমার

সীমাবদ্ধতা তোমার সবচেয়ে জানা। যা হচ্ছে আর যা হবে সবই তোমার জানা

তহলে আমাকে নিয়ে তোমার এত টানাটানি কেন বলোতো

আমি জানি কিছুই বলবেনা, শুধুই চুপ করে থেকে সবকথা বলতে চাইবে

অথচ আমাকে দিয়েছো শব্দ কথা বলার জন্যে, ছবি এঁকে বুঝাবার জন্যে

এমন কি ক্ষমতা দিয়েছো আমার সুর করে জগতকে মোহিত করার জন্যে।

আমিও যদি পারতাম কথা না বলে থাকতে, যদি না জানতাম

কেমন করে সুর করা হয়, ছবি আঁকা হয়। কেন খামাখা বলেছো

আমি সবার সেরা, জগতের সবকিছু আমার সেবা করবে আমি যদিও চাইনা।

যা কিছু হচ্ছে বা আগামীতে যা কিছু যা কিছু হবে, বা অতীতে যা কিছু হয়ে গেছে

এসবের কিছুইতো আমি করছিনা, তবুওতো সব হচ্ছে

কার ইচ্ছায় তা তুমি সবচেয়ে ভাল জান, শুধু জানিনা আমি

জানার ক্ষমতা আমার কখনই ছিলনা, না এখন না তখন না কখনও

তবুও তুমি আছো আমার সাথে আমার পাশে আমার চারিদিকে ভিতরে বাহিরে।

Advertisements

আমাদের সম্পর্ক

তোমার সাথে আছি আমি তোমার সাথেই থাকবো

তুমি কখন ছেড়ে যাবে আমায় সেই তুমিই ভাল জান

আমিতো আর কখনই তোমাকে ছেড়ে যেতে পারিনা

যে বাঁধনে তুমি বেঁধেছো আমায় তা আমি কেমন করে ছিঁড়বো।

তুমি আছো বলেই আমি আছি, তুমি ছাড়া আমিতো কিছুই নই

তুমি থাকলেইতো  আমি থাকি, তুমি না থাকলে আমি কোথাও নেই

তোমার আমার এ সম্পর্ক অনন্তকালের এখানে ওখানে সবখানে

কোথাও কারো ক্ষমতা নেই আমাকে তোমা থেকে বিচ্ছিন্ন করে।

জন্ম থেকেই তুমি আমি এক সাথে আছি, তুমি যেমন চেয়েছো তেমনি

তোমার ইচ্ছাই তুমি প্রকাশ করেছো এই মাটির খাঁচায় তোমার আপন ইচ্ছায়

আমি ভাল থাকি তুমি ভাল রাখলে, আর মন্দ থাকি তুমি মন্দ রাখলে

সকল অবস্থাতেই তোমার ইচ্ছাতেই নিজেকে  আমি তোমাতে সমর্পিত রাখি।

কখন এসেছো আমার এই খাঁচায় তার কিছুই আমি জানিনা

তুমি নিজের ইচ্ছায় আসো এখানে আবার নিজের ইচ্ছায় চলে যাও আমাকে ফেলে

আমিতো পারবোনা কখনো তোমায় ছেড়ে কোথাও যেতে নিজের ইচ্ছায়

আসা আর যাওয়াতে আমার কোন ইচ্ছা কোন মতামত নেই সে কথা তুমি ভালই জান।

 

সাপের সাথে আমার সম্পর্ক

সাপটা কখনও মন থেকে আর কখনও বন থেকে

বেরিয়ে এসে তাড়া করছে

তাড়া খেয়ে আমি দিশে হারা দিক বিদিক।

বুঝতে পারছিনা সাপটা কোথায়

মনে না বনে

কেনইবা সাপটা এমন ক্ষ্যাপে গেছে আমার উপর

আমিতো সাপকে নিয়মিত সাপকে ভয় করি

কখনই সাপ বিরোধী কোন কাজ কখনও করিনি জীবনে

তাহলে সাপটা এমন করছে কেন আমার সাথে।

মনের হোক আর বনের হোক সাপের সাথে আমার কি সম্পর্ক

সাপের সাথে আমার কোন শত্রুতা নেই

আমি সাপকে ভয় করি, তবুও কেন সাপের এমন ব্যবহার

আমার সাথে।

বিদায় বেলার ভাষা

কি বলার আছে এখন আর কিইবা করার আছে

যাবার বেলায় তাই চোখ বুজে রাখি ঠোট ঢেকে রাখি

এমন শব্দ বলোনা এখন চলার পথে বৃষ্টি নেমে আসে

এষযাত্রা থেমে যায় আবেগে আবেগে।

চেখে চোখ রেখোনা শব্দহীন নানাকথা পথ রুখে দেবে

নীরবে নির্জনে কালো গহীন আঁধারে এ যাত্রা নিরাপদ হোক

অনেকদিন হলো তোমার আমার সহযাত্রা একই পথে একই সাথে

অনেক কথা হয়েছে অনেক বলা হয়েছে আর কি কথা আছে বলো

সব কথা সব ভাষা সব সুর থামিয়ে দিয়ে এসো আমি তুমি শব্দহীনতার

নীরব গহীন সাগরে নিজেদের আপন লীলায় ডুবিয়ে দিই।

অনেক কথা হয়েছে অনেক সময়ের মাঝে আর কি কথা আছে বলো

এমন অন্তিম বেলায় সকল ভাষার ইতি হোক এবার।

 

মানুষ নিজের কাছে নিজেই অচেনা

মানুষ কেমন আছে মানুষ কি বলতে পারে

মানুষতো নিজেই নিজেকে চিনতে পারেনা

তাই সে জানেনা সে কে, কেমন করে কোথা থেকে এসেছে

মানুষ জানেনা সে কি, কেনইবা তার আগমন।

জগতে এখন শতকোটি আদম সুরত আদমেরই মতো

আসলে কে মানুষ আর কেই বা আদম বুঝা বড় দায়

নামের মানুষ যারা তারাতো আর মানুষ নয়

তাইতো বলি সবার কাছে শুধু একজন মানুষ চাই।

মানুষ আছে শতকোটি লাল সাদা  কালো শত মানুষের ভীড়ে

একটি মানুষ খুঁজি আমি এই জীবনের পুরো জীবন ভরে

কোথায় আছে সেই সে মানুষ কোথায় তার ঠিকানা

কেমন করে যাবো আমি সেই মানুষের কাছে কেইবা নিবে আমায়।

তেমন মানুষ কোথায় থাকে বলবে সে কোন মানুষ

মানুষ নিজের কাছে নিজের কাছে নিজেই বড়ই অচেনা

তাইতে সে আজ দাসের মতো বিকি কিনি এই হাটে আর সেই হাটে।

 

 

তুমি ফিরিয়ে দিবে বলে

ভয় ছিল তুমি ফিরিয়ে দিবে তাই বলা হয়নি

যা বলার ছিল জীবনের সকাল নেলায়

আজ এই অবেলাতেও মনে হয় তুমি ফিরিয়ে দিবে

যদি একটি বার খোলা মনে মনের কথা বলি।

জানিনা কেন এমন হতো বা এমন হয়েছে সারাটি জীবন

আমিতো বার বার গিয়েছি তোমার কাছে

সকাল সন্ধ্যায় রাত দুপুরে নদীর জলে যখন চাঁদ খেলা করতো

ভোরের সূর্য যখন উঁকি দিতো পূবাকাশ থেকে

গাছের সবুজ পাতা ঝিকিমিকি করতো তোমার হাসির মতো

সোনালী ধানক্ষেতে শিশিরেরা খেলা করতো মাছরাঙা পাখির সাথে।

তুমি ফিরিয়ে দিবে ভেবে ভেবেই বুকের ভিতর লুকিয়ে রেখেছি

সবচেয়ে গোপন কথাটি তোমার আমার

আমি অবাক হই ভেবে ভেবে তুমি আমার চোখ দেখোনি কখনও

চোখের ভিতর বেশ স্পস্ট ছিল মনে ভিতর লুকিয়ে থাকা কথা

সত্যিই আমি অবাক হয়ে ভাবি কেন তুমি পড়তে পারোনি

আমার চোখের ভাষা, ঠোটের ভাষা আর প্রকৃতির খোলা খাতা।

জানিনা এমন কেন হয়েছে  তোমার আমার বুঝা না বুঝা ভাষা

কেন বুঝতে পারিনি দুজনেই দুজনের জীবনের খোলামেলা সবকথা।

অবোধ্য জীবনের কথা

যেদিন এসেছি এখানে সেদিন থেকেই

কোন কিছুই থাকলোনা আর আমার মনের মতো করে

মনের কথাও ঠিক করে বুঝতে পারিনি আজও

নিজেকেও বুঝতে পারিনা এই নিজ কখন কি চায়।

এমনি করেই দিন যায় রাত যায়, যায় মাস আর বছর

সময় গুলো কখনই আমার ছিলনা, না আমি ছিলাম সময়ের

শিশু কাল পেরিয়ে কৈশোরে, তারপরে যৌবন পৌঢত্ব আর অস্ত

কেমন করে কালগুলো পেরিয়ে গেল জানতে পারিনি এক বিন্দু

তবুও কেমন অবিরাম বলে চলেছি এটাই জীবন

কে বুঝেছে এ জীবনকে জানিনা, আমিতো বুঝিনি

অবোধ্য জীবনকে নিয়ে অবাধেই সূর্য উঠে আর সূর্য ডুবে।

 

  • দিনপন্জী

  • খোঁজ করুন