খোদা আর আমি

খোদা আর আমার মাঝে কতটুকু দূর তা  শুধু তিনিই জানেন

খোদাতো বলেছেন তিনি আমার ভিতরে নিশ্বাসের সাথে জড়িয়ে থাকেন

তবুও কেন আমি এত দূরে পড়ে থাকি বুঝতে পারিনা

আর কত কাল আমি এমনি পড়ে রবো তাও জানিনা।

Advertisements

মন্দ মানুষ মন্দ দেশ

আমিতো মন্দ আছি মন্দ রবো

কেমন করে ভাল হবো

সে পথ জানা নেই।

তাইতো তোমায় কই

যদি পারো একটু খানি

অষুধ দিও

আমি যেন তোমার মতো ভালো হই।

ভলো হলে কি লাভ বলো

জগত যদি মন্দ হয়ে রয়

তখন হবে বড়ই বিপদ

নেতারা সব কয়

ভালো কথার শব্দ গুলো

হারিয়ে গেছে

ভালোর কি কাজ বলো?

তাইতো বলো কোরাস গাণে

ভালো গেছে নির্বাসনে

মন্দরা সব রাজা উজির

বসছে সোনার সিংহাসনে।

তাইতো এবার  সবাই আসো

মন্দ  মানুষ ভালবাসো

সবাই হবো মহামন্দ

মিটিয়ে দেবো সকল দ্বন্ধ

রাজা মন্দ প্রজা মন্দ

থাকবেনাকো  একটু দ্বন্ধ।

তুমি ও আমি

তোমার বেদনায় আমি বেদনার্থ  হই

তোমার দু:খে আমি দু:খের সাগরে  ভাসি

তোমার চোখের  পানিতে ভেসে  গেছে

আমার অবস্থান ও সকল পরিচয়।

তুমি দেখলেইতো আমিও দেখি

আমার চক্ষু নেই, তোমাতেই আমি দেখি

এখানে ওখানে সবখানেই তুমি

এখন সারাদিন আমি আমাকেই খুঁজি।

আমি মজলুম খোদাই আমার সাথী

আমি মানুষ, কথা আমায় বলতেই হবে

খোদা স্বয়ং কথা বলেন

আমাকেও কথা বলতে শিখিয়েছেন

আমিতো খোদারই খলিফা।

আজ আমার কোন খেলাফত নেই

আজ আমি মজলুম, জালেমের এই দুনিয়ায়

যারা দেখতে পাবে তারা ভাল করেই দেখো

ওই দেখো খোদার আরশ কাঁপছে থর থর

মজলুমের আহাজারি ও গগন বিদারী কান্নায়।

খোদা যখন আমার সাথে

তখন আমি বিদ্রোহ করবোই

বিদ্রোহ আমার জন্যে বাধ্যতামুলক

জগতের সব মজলুম জেগে উঠো

আকাশ কাঁপিয়ে শুধু একবার বলো

আমি শুনবো না আর কোন তাগুত

ফোরাউন নমরুদ আর সাদ্দাদের কথা।

আমি মজলুম, আমার উপরে আর কেহ নাই

খোদাই  আমার পথ প্রদর্শক

সিরাতুল মোস্তাকিমের নুরানী আলো।

কথা বলা আমার অধিকার

কথা বলা আমার অধিকার

কারো কোন দান নয়

খোদাই দিয়েছেন আমায়

এই অধিকার।

আমি আমার কথা বলবো

পাখির কথা নদীর কথা

পাহাড়ের কথা সাগরের কথা

নীল আকাশের কথা বলবো।

আমি বেঁচে আছি

আমি ঘোষনা দেবো

বাঁচার কথা  ভালবাসার কথা

প্রেমের কথা  ব্যর্থতার কথা

সবইতো আমার অধিকার

তবুও কে আমার  কথা বলার

অধিকার কেড়ে নিতে চায়

কেনইনা কেড়ে নিতে চায়

আমিতো কারো শত্রু নই

তবুও কেন আমার মুখে তালা।

২২শে জুন, ২০১১। রাত ১১টা।

 

প্রতিবাদ আমি করবোই

গণ দরখাস্তের এখন সময় নেই

কোথায় পাবো এত দস্তখত

কোথাও মিছিল নেই

প্রতিবাদের ভাষা নেই

বন্ধুরা কোথাও লুকিয়ে আছে

সময় ভাল হলে আবার ফিরে আসবে

শুধু আমি পেছনে পড়ে গেছি একাকী

কোথাও যাবার পথ নেই

চারিদিকে বুটের মিছিল

মাঝখানে আমি একা

আর সাথে আছে কিছু শ্লোগান

প্রতিবাদ আমি করবোই

এ ছাড়া আমার বাঁচার

কোন পথ খোলা নেই।

পলাতক অবস্থায় তোমরা

কান পেতে  শোনো

আমার শ্লোগানের শব্দ

আর সাথে সাথে গুলির আওয়াজ

তারপর আরও হাজারো গুলির আওয়াজ

আর লাখো মিছিলের শ্লোগান

সবার হাতে বিজয়ের পতাকা।

রাত ১২টা, ১৩ই জুন, ২০১১

পরাজিত এক নাগরিকের কবিতা

আমাকে বলোনা বন্ধু বন্দনার ভাষা কী

জানিনা কেমন করে লোকে বন্দনা করে

তিনি  দয়া করে শিখিয়ে দেননি তেমন ভাষা

যে ভাষায় তিনি তুস্ট হন।

আমিতো ক্ষিপ্ত রাগান্বিত

ভুলে গেছি তেমন নরম  মোলায়েম ভাষা

কোথা হতে কেমন করে আসে

গোলাপ বাগান যত আগুনে ছারখার

চাঁদ পুড়ে চাই হয়ে গেছে  জাহান্নামের আগুনে

আমিও পুড়ছি

এখন চারিদিকে শুধু জ্বলছে আগুন

কেমন করে লিখবো  এমন সময়

তোমার বন্দনার গাণ

কেমন করে দেবো সুর তেমন গাণের

যখন জগতটা দখল করে নিয়েছে

নতুন নমরুদ আর ফেরাউনের দল

আমার কলম কাগজ কালি পুড়ে গেছে

ভাষারা যেন কোথায় হারিয়ে গেছে

চারিদিকে বুটের আওয়াজ

সেই বুটের আওয়াজে তলিয়ে গেছে

আগুন নিভে গেলে সব ছাই এখানে সেখানে

আমিও সেখানে একাকী এক ছাই মাখা দেশে।

  • দিনপন্জী

  • খোঁজ করুন